1. babuibasa@gmail.com : editor :
  2. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  3. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৫:২২ অপরাহ্ন

একজন ভূট্টো সিকদার! তার মানবিক ও দলীয় অবদানের স্বীকৃতি চাই ইউনিয়নবাসী

  • সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ১১ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ

ষাটোর্ধ বৃদ্ধা অসহায় কুলসুমা বেগম(ছদ্মনাম)। একটি পারিবারিক সমস্যা নিয়ে স্থানীয় কিছু মানুষের রোষানলে পড়ে এদিক ওদিক ঘুরতে ঘুরতে পার করে দেন দীর্ঘ ৯ বছর। চেয়ারম্যান একজন এল আরেকজন গেল।কিন্তু অসহায় বৃদ্ধার সমস্যা থেকেই গেল। স্থানীয় মেম্বার থেকে শুরু করে গণমান্য ব্যক্তির দরজা ঘুরে নিই এমন সংখ্যা কম। হঠাৎ কিছুদিন আগে স্থানীয় এক ছাত্রের মাধ্যমে হাজির হন বদরখালী জেনারেল হাসপাতালস্থ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ভূট্টো সিকদারের অফিসে। তখন বৃদ্ধার অসহায়ত্ব দেখে পেট ভরে কলা,পাউরুটি চা খেয়ে পরম মমতায় সমস্যার কথা শুনে তাকে আশ্বস্থ করলেন বিদ্যামান সমস্যা সমাধান করে দেওয়ার। পরম মমতায় মাথায় হাত বুলিয়ে দোয়া করে কান্না করে বলেন সব জায়গায় ঘুরেছি কেউ মন ভরে কথা বলেনি,আর আমার কথাও তেমন শুনেনি, আল্লাহ ভূট্টো সিকদারকে হায়াত দান করুক বলে চলে যান। এর ঠিক কিছুদিন পরেই বৃদ্ধার মুখে অট্ট হাঁসি।তার দীর্ঘদিনের সমস্যা সমাধান। এভাবেই বদরখালী সর্বস্তরের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান বদরখালী ঐত্যহবাহি প্রয়াত এজাহারুল সিকদার পরিবারে যোগ্য উউত্তরসূরি একে ভূট্টো সিকাদর। বিপদে-আপদে, মানুষে সাহায্য সহযোগিতা করা তাদের রক্তে মিশিয়ে আছে যুগযুগান্তর। তার ধারাবহিকতা আজ পর্যন্ত চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি এবং ভবিষ্যৎ অসহায় মানুষের পাশে থাকবেন এমন প্রত্যাশা সর্বস্তরের জনগণের।
তার পরিবার ছিল বদরখালীর স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি হিসাবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সেই থেকে আজ পর্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করা সম্মুখসারির একটি। তার পরিবারের ঐতিহ্য ও বঙ্গবন্ধুর আর্দশ ধারণ করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগে ১৯৯৩ সালে যোগদেন ছাত্রলীগে। কর্মদক্ষতা ও দলের আস্থার প্রতিদান হিসাবে ১৯৯৯ সালে নির্বাচিত হন বদরখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহবায়ক।শতশত কর্মী সৃষ্টির কারিগর হিসাবে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠে ইউনিয়ন জুড়ে। দলের দুঃসময়ে ও ছাত্রলীগের প্রোগ্রাম,দলীয় সভা,মিছিল, মিটিং ও জাতীয় প্রোগ্রামে কর্মীদের নিয়ে সম্মুখ সারিতে হাজির হত প্রোগ্রামে। তার সাফল্য ইউনিয়ন থেকে শুরু করে উপজেলা নেতাদের নজরে পড়ে। তার প্রতিদান হিসাবে ২০০৮ সালে নির্বাচিত হন ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। ছাত্রনেতা থেকে সদ্য যুবনেতাতে পরিনত হওয়া ভূট্টো সিকদার যুবলীগে তার আস্থার প্রতিদান রাখেন। যুব রাজনীতিতে এসে জিমিয়ে পড়া যুবলীগকে আবার কর্মীবান্ধব করে গড়ে তুলেন। দলের সুসময়ে অনেকেই আওয়ামী লীগে ঢুকে দলের বেহাল অবস্থা হয়ে পড়ে। ঠিক তখনই আওয়ামী লীগের হাল ধরার চিন্তা করে ২০১৯ সালে কাউন্সিলে সেক্রেটারি প্রার্থী হন। সরাসরি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কাউন্সিলরের বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন সাধারন সম্পাদক। তারপর থেকেই মূলদল কে সুসংগঠিত করে দলীয় অঙ্গসংগঠনেও গোছাতে থাকেন। তার নিপুন ও কলাকৌশলী নেতৃত্বে আজ বদরখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগে বেশ সুসংগঠিত ও শক্তিশালী। সরকারে ব্যাপক উন্নয়নের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন,শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন।

আগামীতে ইউপি নির্বাচনে সরকার উন্নয়নের ধারাবহিকতা ধরে রাখতে ও বদরখালী ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়নে সাজাতে ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে একজন ভূট্টো সিকদারের বেশ প্রয়োজন মনে করছেন ইউনিয়নবাসী।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!