1. babuibasa@gmail.com : editor :
  2. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  3. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৭:০২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সরকার কর্তৃক আরোপিত নিষাধাজ্ঞা বাস্তবায়নে পেকুয়া উপজেলা প্রশাসনের তৎপরতা প্রবীণ সমাজ সেবক শাহাদাত হোছাইন’র ইন্তেকালে কুতুবদিয়া প্রেসক্লাবের শোক একজন ভূট্টো সিকদার! তার মানবিক ও দলীয় অবদানের স্বীকৃতি চাই ইউনিয়নবাসী শেরপুরের নকলায় মায়ের সাথে অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা! কুতুবদিয়ায় ৩ জলদস্যু আটক বদরখালী ছনুয়া পাড়া বাইতুল ইজ্জত পাঞ্জেগানা নিজের অর্থায়নে পূর্ণ নিমার্ণের ঘোষণা দিলেন আরিফ চকরিয়ার বদরখালীতে বি আই ডব্লিউ টি ‘র জায়গায় স্থায়ী পাকা দালান বাড়ী নির্মাণের অভিযোগ চিহ্নিত মাদক কারবারীদের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করলেন মহেশখালী পৌর ছাত্রলীগ। স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ২৪ জনকে ২৬০০০ হাজার টাকা জরিমানা মহেশখালিতে বদরখালী সাতডালিয়া পাড়া তা’লিমুল নুরানী মাদ্রাসার বার্ষিক সভায় আরিফ চেয়ারম্যানের অনুদান

ফেসবুকের পরিচয়ে বিয়ে করে হাতিয়ে নিত কাবিনের টাকা! অবশেষে মামলায় প্রতারক মুক্তা কারাগারে

  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ৬২ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

 

রকিয়ত উল্লাহ ,

 

ফেসবুকে পরিচয়, তারপর প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণার অভিযোগে শামীমা আক্তার মুক্তা (৩২) নামে এক নারীকে গ্রেফতার করেছে চকবাজার থানা পুলিশ।  তার ১৫ ও ৮ বছর বয়সী দুই কন্যা সন্তান ও সাবেক ৪/৫ টি স্বামী রয়েছে বলে জানা গেছে ।

 

মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) সকালে দামপাড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। প্রতারক মুক্তা আনোয়ারা উপজেলার তৈলারদ্বীপ পূর্ব বারখাইন এলাকার হাসান আলী মুন্সী বাড়ীর মো. সোলায়মান প্রকাশ লেদু মিয়ার কন্যা।

 

 

এরপরে তাকে দুপুরে ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার জাহান এর সিএম-৩ আদালতে জামিন আবেদন করা হলে জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।  বিষয়টি নিশ্চিত করেন চকবাজার থানার এস আই ও মামলার আইও রাজীব পাল।

 

মামলার এজাহার ও পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ফেসবুকে প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে আকিবুল ইসলাম আকিবকে ফাঁদে ফেলে কৌশলে শামীমা আক্তার মুক্তা বিয়ে করতে বাধ্য করেন। তবে সে তখন আকিবের কাছে তার স্বামী ও সন্তান আছে বিষয়টি গোপন করেছেন। শামীমা আক্তার মুক্তা নিজেকে অবিবাহিত বলে স্বামী ও সন্তান থাকার সত্ত্বেও আকিবকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে বিয়ে করার অভিযোগে সি আর মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

 

এই বিষয়ে মামলার বাদী আকিবুল হাসান আকিব বলেন, শামীমা আক্তার মুক্তার সঙ্গে আমার ফেসবুকে পরিচয় এবং পরে বন্ধুত্ব হয়। তখন সে আমাকে অবিবাহিত বলেন। এবং আমার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলেন। পরে একদিন সে আমাকে কৌশলে তার চকবাজারস্থ বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে ৪/৫ জন লোকের উপস্থিতে বিয়ে করতে বাধ্য করেন এবং ১০ লাখ টাকা কাবিন দিতে বাধ্য করেন। বিয়ের পর আমি জানতে পারি তার স্বামী সন্তান রয়েছে। বিষয়টি আমি তার কাছ থেকে জানতে চাইলে তখন সে আমাকে তালাক দিতে বলে অন্যথায় নারী নির্যাতন মামলা দিবে বলে আমাকে হুমকি-দমকি দিতে থাকে। পরে সে আমাকে মামলা দেয়। শামীমা আক্তার মুক্তা এর আগে আইয়ুব নামের এক ব্যবসায়ীকেও আমার মত প্রতারণার ফাঁদে ফেলে বিয়ে করে। আইয়ুবের কাছ থেকে নারী নির্যাতন মামলার ভয় দেখিয়ে তালাক নেয় এবং কাবিনে টাকা আদায় করেন। শামীমা আক্তার মুক্তা প্রতারণার এসব ফাঁদ পাতেন তাঁর প্রথম স্বামী লোকমান হোসেন শাহীনকে নিয়ে। তারা স্বামী স্ত্রীর বিরুদ্ধে মাদক সহ বিভিন্ন প্রতারণার মামলাও রয়েছে বিভিন্ন থানায়। আকিব আরো বলেন যে, প্রতারক মুক্তা ৩৫ বছরের বয়স্ক মহিলা থেকে প্লাস্টিক সার্জারীর মাধ্যমে ১৯/২০ বছরের মেয়ের (অবয়ব) রুপ ধারন করে মুলতঃ এহেন জগন্য প্রতারনা চালিয়ে আসছিল।

এব্যাপারে চকবাজার থানা অফিসার ইনচার্জ  রহুল আমীন জানান, সি আর প্রতারণা মামলায় শামীমা নামে এক নারীকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!