1. babuibasa@gmail.com : editor :
  2. news24nazrul@gmail.com : Nazrul Islam : Nazrul Islam
  3. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  4. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৯:৪৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মহেশখালীর শাপলাপুরে ১টি বসতবাড়ী আগুনে পুড়ে ছাই,ক্ষতিগ্রস্তদের কান্নার রুল। উখিয়ায় মুজিব শতবর্ষ ব্যাডমিন্টন ফাইনালে কোটবাজার খেলোয়াড় সমিতির জয় মহেশখালীতে পরকিয়ার টানে প্রেমিকের হাতধরে নববধু উধাও; নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট। ডাক্তার দম্পতির সেবায় এগিয়ে যাচ্ছে মাতারবাড়ি মডার্ণ হাসপাতাল বেড়িবাঁধের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করলেন বড়ঘোপ ইউপি চেয়ারম্যান কুতুবদিয়ায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলণের দায়ে ২ লাখ টাকা জরিমানা উখিয়ায় ইয়াবাসহ কুতুপালংয়ের রফিক আটক উখিয়ায় অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ট্রাফিক বিভাগ হালদার পাড়ে বসবে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল এমফিল-পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তি নেবে চবি

নারী এনজিওকর্মীর বাসা থেকে আপত্তিকর অবস্থায় সুশীলনের এক কর্মকর্তা জনতার হাতে ধরা!

  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৮ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক,উখিয়া,কক্সবাজার

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কর্মরত বিভিন্ন স্থান থেকে আগত এনজিওকর্মীরা দীর্ঘদিন ধরে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে অবৈধ মেলামেশা করে আসলেও প্রশাসন তেমন কোন উদ্যোগ গ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে লেখালেখির পর উপজেলা প্রশাসন গত বছর সিকদারবিল গরুবাজারস্থ কয়েকটি ভবনে অভিযান পরিচালনা করলেও পরবর্তীতে তা থমকে যায়। যার ফলে এসব অবৈধ মেলামেশা আরো বৃদ্ধি পায়।

এদিকে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উখিয়া উপজেলার পালংখালীস্থ এক নারী এনজিওকর্মীর বাসা থেকে আপত্তিকর অবস্থায় জনতা হাতে-নাতে ধরা পড়ে বেসরকারি সংস্থা সুশীলন নামক এনজিও’র এক কর্মকর্তা। তার নাম অনিরুদ্দা সরকার।

স্থানীয় লোকজন আপত্তিকর অবস্থায় তাকে ধরে চেয়ারম্যান’এর কার্যালয়ে নিয়ে আসলেও বিষয়টি তিনি তাৎক্ষণিক কোন সিদ্ধান্ত দিতে পারেনি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অভিযুক্ত অনিরুদ্দা সরকার বলেন, আমাকে রাতে এক নারী এনজিওকর্মীর বাসায় পেয়ে স্থানীয় কয়েকজন লোক চেয়ারম্যানের কাছে ধরে নিয়ে আসে। বিষয়টি নিয়ে আজ ৯টায় আবারো বৈঠক রয়েছে বলে সে স্বীকার করেন।

তবে সুশীলনের কয়েকজন সিনিয়র কর্তারা ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে গত রাত থেকে বিভিন্ন স্থানে তদবির করে যাচ্ছে বলে নির্ভরযোগ্য জানিয়েছেন।

স্থানীয় চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ঘটনা ঠিক কিন্তু প্রমাণ নেই। কেউ অভিযোগ না করার কারনে কোন ব্যবস্থা নেওয়া যাচ্ছে।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহমেদ সঞ্জুর মোরশেদ বলেন, এ ধরনের কোন অভিযোগ আমাদের হাতে আসেনি। আসলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!