1. balaram.cox@gmail.com : balaram das : balaram das
  2. babuibasa@gmail.com : editor :
  3. news24nazrul@gmail.com : Nazrul Islam : Nazrul Islam
  4. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  5. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৪৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
চট্টগ্রামের ১১ ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ চলছে উখিয়ায় যত্রতত্র গাড়ী পার্কিং,অবর্ণনীয় দুর্ভোগ উখিয়ায় শেড’র প্রকল্প বিষয়ক সাংবাদিক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রাত পোহালেই রাজাপালংয়ের ৯ নং ওয়ার্ডের ভোট গ্রহণ ত্রিমুখী প্রতিদন্ধিতায় কে হাসবেন বিজয়ের হাসি? টেকনাফ ডিএনসির হাতে দশহাজার ইয়াবা সহ রহমতের বিলের জহির আটক ঘুমধুমে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত ঘুমধুম ইউনিয়ন বিট পুলিশিং সভায়-ওসি আলমগীর সামাজিক নিরাপত্তায় পুলিশ-জনগণ এক কাতারে কালারমারছড়ায় নোনাছড়ি নূরানী কিন্ডার গার্ডেন ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করলেন চেয়ারম্যান তারেক পেকুয়ায় পিকআপ ভর্তি চোরাই কাঠ জব্দ উখিয়ায় উপজেলা ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল-পথ সভা

উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই ডাকাত দলের মধ্যে গোলাগুলি, নিহত-৪

  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর, ২০২০
  • ৯ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

শ.ম.গফুর,উখিয়া,কক্সবাজার

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে দুই গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনায় অন্তত ৪ ব্যক্তি নিহত হয়েছে বলে ধারণা করছেন। ক্যাম্পের বাসিন্দারা তাদের ‘ডাকাত’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। মঙ্গলবার রাতে কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে এ ঘটনা ঘটে। সেখানে এখনও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

রোহিঙ্গারা জানায়, ‘ক্যাম্পের মুন্না গ্রুপ ও ‘আরসা’ গ্রুপের মধ্যে মাদকসহ ক্যাম্প নিয়ন্ত্রণকে কেন্দ্র করে দফায়- দফায় গোলাগুলির ঘটনায় ওই চারজন নিহত হয়েছে। তার মধ্যে একজন শীর্ষ ডাকাত মুন্না বাহিনীর প্রধান মুন্নার ভাই গিয়াস উদ্দিন ওরফে গেচ্ছারী বলে জানা গেছে। বাকিদের নাম পাওয়া যায়নি। এখনও সেখানে গোলাগুলির ঘটনা ঘটছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে কাজ করছে।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহমেদ সনজুর মোরশেদ বলেন, ‘গোলাগুলির ঘটনায় নিহত চার জন রোহিঙ্গার মারা গেছে। পুলিশ সেখানে কাজ করছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।’

রাত সাড়ে ৯ টার দিকে কক্সবাজার জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘উখিয়া রোহিঙ্গা শিবিরের ডাকাত দলের দুই পক্ষের গোলাগুলিতে চারজন মারা গেছে। পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করেছে। পুলিশ ডাকাতদের ধরতে অভিযান পরিচালনা করছে।’

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন রোহিঙ্গাদের মধ্যে গোলাগুলি চলছিল। এর আগে রবিবার ৮টার দিকে আবার দ্বিতীয় দফা গোলাগুলি, অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এতে সাতটি ঘর পুড়ে গেছে এবং আহত হয়েছেন ১০/১৫ জন রোহিঙ্গা। তাদেরকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল ও রোহিঙ্গা শিবিরের বিভিন্ন এনজিও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!