1. balaram.cox@gmail.com : balaram das : balaram das
  2. babuibasa@gmail.com : editor :
  3. news24nazrul@gmail.com : Nazrul Islam : Nazrul Islam
  4. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  5. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৪৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কালারমারছড়ার নোনাছড়িতে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী অপহরণের অভিযোগ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ হলদিয়াপালং ইউনিয়ন শাখার দ্বি-বার্ষিক কাউন্সিল সম্পন্ন উখিয়ায় নতুন ইউএনও নিজাম উদ্দিন আহমেদ উখিয়ার মানুষ সহযোগিতা পরায়ণ বলেছেন সদ্য বিদায়ী ইউএনও নিকারুজ্জামান চৌধুরী উখিয়ায় র‍্যাবের অভিযানে ১৯৬০০ পিস ইয়াবাসহ আটক দুই রোহিঙ্গা রোহিঙ্গা সংকট এবং করোনা মোকাবিলায় ইউএনও নিকারুজ্জামান ছিলেন খাঁটি দেশপ্রেমিক-এমপি শাহীন রাজাপালং ইউপির ৯ নং ওয়ার্ডের উপ-নির্বাচনে একই পরিবারের মাতা-ছেলে-জামাতার মনোনয়ন নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি মুহাম্মদ অালমগীর হোসেন জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত কুতুবদিয়ায় চৌমুহনী বাজারে মাদরাসা মার্কেটে ১৪ দোকান পুড়ে ছাই পেকুয়ার শিলখালীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে পিতাপুত্রকে কুপিয়ে আহত করেছে।

মাতারবাড়ী সমুদ্রবন্দর হবেই দেশের অর্থনীতির গেইম চেঞ্জার

  • সর্বশেষ আপডেট : শুক্রবার, ২৮ আগস্ট, ২০২০
  • ১০ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

রকিয়ত উল্লাহ, মহেশখালী

দেশের সবচেয়ে বড় ও গুরুত্বপূর্ণ অর্থনীতির গেইম চেঞ্জার হবেই মাতারবাড়ি গভীর সমুদ্রবন্দর। গভীর এই সমুদ্র বন্দর বাংলাদেশকে পরিণত করবে অন্যতম অর্থনৈতিক শক্তিতে। যার মাধ্যমে মিয়ানমার-ভারতসহ আশিয়ান দেশগুলো সংযুক্ত হবে।
এদিকে নানা সংকটে জর্জরিত চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর। দেশের সবচেয়ে বড় এই সমুদ্র বন্দরে প্রয়োজনের তুলনায় জনবল সীমিত আছে যন্ত্রপাতির সংকট। ভিড়তে পারে না মাদার ভেসেল। এতে আমদানি-রপ্তানিতে পড়তে হয় বড় সমস্যায়। এ সব সংকট কাটিয়ে উঠতে জাপানের অর্থায়নে কক্সবাজারের মহেশখালির মাতারবাড়িতে নির্মিত হচ্ছে গভীর সমুদ্র বন্দর। যেখানে গভীরতা পাওয়া যাবে প্রায় ১৪ মিটার। যাতে সহজেই ভিড়তে পারবে মাদার ভেসেল। চ্যানেল 24 কে দেওয়া একান্ত সাক্ষাতকারে জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, এভাবে প্রসারিত হবে জাপানের বিগ বি ও ইন্দো প্যাসিফিক অর্থনৈতিক ভিশন। আর কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে ব্যবহার করা হবে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি। যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় পরিবেশ। জাপানি রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, এটি বাংলাদেশের অর্থনীতির গেইম চেঞ্জার হবে। একইসাথে আশিয়ানের অর্থনৈতিক হাব হবে বাংলাদেশ।মাতাবাড়িতে তিনটি জেটির একটি থাকবে শুধু কয়লার জন্য। কারণ এখানে নির্মাণ কাজ চলছে ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াটের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের। এতে পরিবেশ বিপর্যয়ের শঙ্কা উড়িয়ে দেন এই কূটনীতিক। বন্দরটি চালু হবে আগামী ২০২৪ সালে।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!