1. babuibasa@gmail.com : editor :
  2. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  3. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
  4. rokiotullah@gmail.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৪:৩১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
শাপলাপুরের গহীন পাহাড়ে মহেশখালী থানা পুলিশের অভিযান ২ টি অস্ত্র উদ্ধার,আটক ১ উখিয়ায় পেটের ভেতরের ৩ হাজার পিস ইয়াবাসহ বগুড়ার সুজন প্রামাণিক আটক! উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ হতাহত-৬ নকলার লাভলু ভাত না খেয়েও অতিবাহিত করলো ২১ বছর ঘুমধুম পুলিশে ত্রিশ লাখ টাকার তিনটি স্বর্ণের বার উদ্ধার,এক রোহিঙ্গা গ্রেফতার উখিয়ায় পাহাড় কর্তনকালে মাটিসহ ডাম্প ট্রাক মহেশখালীতে জেলা বিএনপি নেতা আতাউল্লাহ বোখারীর নেতৃত্বে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালিত উখিয়ায় বনবিভাগের অভিযানে বালু উত্তোলন কালে ড্রেজার মেশিনের সরঞ্জাম উদ্ধার মহেশখালী থেকে ইয়াবা সরবরাহ করতে গিয়ে নোয়াখালীতে এসে আটক হলেন -২ বান্দরবানে মসজিদের ইমাম হত্যার ঘটনায় শফি পুত্র শাইখুল হাদীস আনাস মাদানীর নিন্দা ও প্রতিবাদ

চট্টগ্রামে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে বাড়ী থেকে বের করে দিল যৌতুকলোভী পাষন্ড স্বামী

  • সর্বশেষ আপডেট : শুক্রবার, ২১ আগস্ট, ২০২০
  • ১২৪ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক,(চট্টগ্রাম)ঃ

চট্টগ্রাম শহরের কাজির দেউড়ী এলাকায় যৌতুকের জন্য পাষন্ড স্বামী শিউলী আক্তার নামীয় অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূকে বাড়ী থেকে বের করে দিয়েছে মর্মে গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এব্যাপারে ভুক্তভোগী গৃহবধূ নারী শিশু ট্রাইব্যুনাল-১ আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলার এজাহার সুত্রে প্রকাশ, গত ২০১৯ সালের আগষ্টে ইসলামী শরীয়াহ্ মোতাবেক চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন জামাল খান ওয়ার্ড অফিসে চাকুরীজীবী পারভেজ কবিরের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর মাস তিনেক মোটামুটি সুখে কাটলেও পরবর্তিতে যৌতুকের জন্য অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ সহ শারীরিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। ক্রমান্বয়ে নির্যাতনের মাত্রা বাড়তে থাকলে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারীতে চট্টগ্রাম কোর্টে তার বিরুদ্ধে যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা দায়ের করলে গ্রেপ্তার হন পারভেজ। পরে আপোষ মিমাংসার শর্তে জামিনে এসে পুনরায় তাকে শারীরিক-মানসিক নির্যাতন চালায়। অনাগত সন্তানের ভবিষ্যত চিন্তা করে সব অত্যাচার মুখবুজে সহ্য করে অসহায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ শিউলী।
বিগত ২৮ জুলাই বাপের বাড়ীর জমি বিক্রি করে ২০ লক্ষ টাকা যৌতুক এনে দিতে চাপ সৃস্টি করে একপর্যায়ে স্বামী শাশুড়ী ননদ সহ সবাই মিলে তাকে প্রচন্ড মারধর করে এক কাপড়ে বাসা বের করে দেয়া হয়। যার ফলে বাধ্য হয়ে গত ৫ আগস্ট চট্টগ্রাম নারী- শিশু ট্রাইব্যুনাল- ১ আদালতে আরো একটি মামলা দায়ের করেন। এরিমধ্যে গত ১১ আগস্ট চট্টগ্রামের একটি ক্লিনিকে সিজারিয়ান ডেলিভারীর মাধ্যমে কন্যা সন্তানের জন্ম হয় । তার স্বামীকে বিভিন্ন মাধ্যমে খবর দিলেও একটি বারের জন্য নবজাতককে দেখতে আসেনি কিংবা কোন প্রকার যোগাযোগ করেনি।
এব্যাপারে শিউলী আক্তার বলেন,পারভেজ কবিরের ১ম পক্ষের স্ত্রী ও ২ ছেলে – মেয়ে রয়েছে। কিন্তু ভুয়া ডিভোর্সের কাগজপত্র দেখিয়ে ১ম স্ত্রীকে তালাক দিয়েছে বলে, সত্য গোপন করে প্রতারনার মাধ্যমে তাকে বিয়ে করেন সুচতুর যৌতুকলোভী স্বামী। বিয়ের তিন মাস পর প্রকাশ পায় তার আসল রুপ,১ম স্ত্রী ও সন্তানদের কাজির দেউড়ীস্থ ২ নং গলি,তার মালীকানাধীন
সেল সোনিয়া টাওয়ারের ৮ তলা ফ্লাটে নিয়ে আসেন এবং তাকে একই বিল্ডিংয়ের ২য় তলায় একটি ফ্লাটে তার বৃদ্ধা শাশুড়ী ও ননদের সাথে রক্ষিতার মত করে রেখেছিল। উল্লেখ্য যে- ১ম স্ত্রীর বিষয় নিয়ে প্রতিবাদ করাটাই তাঁর জীবনে কাল হয়ে দাঁড়ায়। যৌতুকের ইস্যু নিয়ে তাকে অমানুষিক নির্যাতনের শিকার হতে হয়। শিউলী আরো বলেন, স্বামীর বাড়ীতে প্রতিকুল পরিবেশ পরিস্থিতিতে,এত্ত নির্যাতন নিপীড়নের মধ্যেও,বহুকষ্টে পড়ালেখা চালিয়ে যায় এবং এলএলবি পাস করেন। তাঁর স্বামী কোন রকম পড়ালেখার খরচ পর্যন্ত দেয়নি। তার অভিযোগ, যখন স্বামীর বাসায় ছিল তখনও, স্বামী কোনরকম খোজ খবর রাখতো না, ভরন পোষন দিত না,এমনকি তাঁর ফ্লাটে কোনদিন রাত্রীযাপন ও করে নাই,কদাচিৎ তাঁর ফ্লাটে এলেও মা-বোনকে দেখে চলে যায়,ঐ সময়েও তাকে যৌতুকের জন্য গালাগালি সহ শারীরিক নির্যাতন করতো। কোর্টে মামলা করে, মিমাংসার শর্তে জামিনে এসে আরো বেশি অত্যাচার করে, গত জুন মাসে তাকে বাসা থেকে বের করে দেয়া হলে কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুনরায় বাসায় নিয়ে যায়। তবে ১ মাস যেতে না যেতেই আবার মারধর করে বের করে দেয়। স্বামীকে মোবাইলে কল দিলে বলে,২০ লক্ষ টাকা যেদিন দিতে পারবি সেদিন স্বামী দাবী করবি, সে নাকি ক’দিন তার সাথে আনন্দ ফুর্তি করেছে,জাস্ট টাইম পাস করেছে। ফের যদি তার সাথে যোগাযোগ করে, তাকে স্বামী পরিচয় দেয় কিংবা তার বিল্ডিংয়ে আসার চেষ্টা করে তবে জানে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেয়। শিউলি কান্নাজড়িত কন্ঠে আরো বলেন, বর্তমানে ভাইয়ের বাসায় বাচ্চাটা কে নিয়ে খুবি মানবেতর জীবন- যাপন করছে, সব মেয়ের অধিকার আছে- স্বামী সন্তান নিয়ে সুখে বসবাস করার,তবে কিইবা তার অপরাধ, কেন সে স্বামী সংসার থেকে বিতাড়িত, ছোট্ট নিস্পাপ অবুঝ শিশুটিরই বা কি অপরাধ,কেন সে পিতৃ স্নেহ থেকে বঞ্চিত হবে।
এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ভুক্তভোগী গৃহবধূ।
এদিকে, গৃহবধূর স্বামী পারভেজ কবিরকে মুঠোফোনে ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে, তিনি ব্যস্ত আছেন,পরে কথা বলবেন বলে সংযোগ কেটে দেন।।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!