1. balaram.cox@gmail.com : balaram das : balaram das
  2. babuibasa@gmail.com : editor :
  3. news24nazrul@gmail.com : Nazrul Islam : Nazrul Islam
  4. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  5. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১৩ অপরাহ্ন

বঙ্গোপসাগরে বসানো নিষিদ্ধ জালের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনার দাবী

  • সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ৯ আগস্ট, ২০২০
  • ২৫ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুতুবদিয়াঃ

কুতুবদিয়া উপকূলের মাত্র কয়েক কিলোমিটার দূরে ১০ মিটারের কম গভীর বঙ্গোপসাগরে নিষিদ্ধ বিহিন্দী ও কারেন্ট জালের ফার বসিয়ে মাছের রেনু ধ্বংস ও সংঘাত সৃষ্টকারীদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অভিযান দাবী করেছে কুতুবদিয়ার জেলেরা। বঙ্গোপসাগরের বিভিন্ন পয়েন্ট অবৈধভাবে দখল করে রাখায় বাঁশখালী ও গহিরা উপকূলের জেলেদের কাছে অসহায় হয়ে পড়েছে কুতুবদিয়ার জেলেরা।

গত এক সপ্তাহে বাঁশখালী ও গহিরা উপকূলের জেলেদের বসানো অবৈধ ফারে আটকে গিয়ে নষ্ট হয়েছে কুতুবদিয়া উপকূলের জেলেদের  প্রায় দুই কোটি টাকার জাল। যার ফলে সাগর থেকে উপকূলে ফিরতে হয়েছে খালি হাতে। এরই মধ্যে পুঁজি হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছে অনেক জেলে। এভাবে চলতে থাকলে না খেয়ে মরতে হবে কুতুবদিয়া উপকূলের অসহায় জেলে পরিবারগুলোকে।

শনিবার (৮ আগস্ট) সন্ধ্যায় বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের সম্মেলন কক্ষে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে সংবাদ সম্মেলন করে এসব কথা বলেন উপজেলা মৎস্য ফেডারেশনের সভাপতি আবুল কালাম আযাদ।

সংবাদ সম্মেলনে জেলেরা জানান, কুতুবদিয়া উপকূলের পশ্চিম ও দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় মাছধরার নামে চলছে বাঁশখালী উপকূলের জেলেদের রামরাজত্ব। ওসব এলাকায় পাশের উপজেলা বাঁশখালী ও আনোয়ারার জেলেরা এলোপাতাড়ী অবৈধ বিহেন্দী ও টংজালের ফার
পুঁতে রাখায় মাছ ধরার জন্য ভাসা জালও ফেলতে পারছে না কুতুবদিয়া উপকূলের জেলেরা। পুঁতে রাখা ওইসব ফারে আটকে বিগত এক সপ্তাহে কুতুবদিয়ার প্রায় ১২০/১৩০ জন ক্ষুদ্র জেলেদের দু’আড়াই কোটি টাকার মাছধরার জাল নষ্ট হয়ে গেছে।

জেলেরা আরও জানান, কুতুবদিয়া দ্বীপের উত্তর পশ্চিম দিকেও তাদের মাছ ধরতে দেয় না ওইসব উপকূলের জেলেরা। এমনকি বিভিন্ন সময় মারধর পূর্বক ডাকাতি করে জালসহ মূল্যবান জিনসপত্রও নিয়ে গেছে ওইসব জেলেরা। প্রতিবাদ করলে উল্টো চাঁদাবাজী ও জলদস্যুতার তকমা দিয়ে তুপেরমুখে ফেলে দেয় ওসব এলাকার সংঘবদ্ধ জেলেরা।

সংবাদ সম্মেলন শেষে স্থানীয় বড়ঘোপ ইউপির ৪ ও ৬ নং ওয়ার্ডের ক্ষতিগ্রস্ত জেলেরা মৎস্য ফেডারেশনের সভাপতি আবুল কালাম আযাদের নেতৃত্বে বড়ঘোপ ইউপির চেয়ারম্যান আ.ন.ম.শহীদ উদ্দিন ছোটন বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ উপস্থাপন করেন।

এ সময় ক্ষতিগ্রস্ত প্রান্তিক জেলেদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মকসুদুল হক, দেলোয়ার হোছাইন, মুহাম্মদ রমিজ, ইসহাক মাঝি, সাদ্দাম হোছাইন, জাকারিয়া কোম্পানী, লেয়াকত আলী কোম্পানী, নাজের মাঝি, কালু কোম্পানী, শাহ আলম, আনোয়ার হোছাইন, নুরুল হুদা কোম্পানীসহ অনেকেই।

বড়ঘোপ ইউপির চেয়ারম্যান জানান, কুতুবদিয়া উপকূর জেলেরা দ্বীপের পশ্চিম ও দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে দৈনিক ভিত্তিতে  ভাসমান ইলিশ, সুন্দরি , কট ও মাইট্টাজাল বসিয়ে পরিবারপরিজন চালায়। কিন্তু বাঁশখালী ও আনোয়ারা এলাকার জেলেরা তাদের মাছ ধরার স্থানগুলো অবৈধভাব নিষিদ্ধ জাল বাসিয়ে দখল করে রাখায় বারবার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কুতুবদিয়া উপকূলের জেলেরা।

বিষয়টি নজরে এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

চট্টগ্রাম টুডে#এনআই#

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!