1. balaram.cox@gmail.com : balaram das : balaram das
  2. babuibasa@gmail.com : editor :
  3. news24nazrul@gmail.com : Nazrul Islam : Nazrul Islam
  4. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  5. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:১৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কুতুপালংয়ে ক্যাম্প ইনচার্জের আস্কারায় রোহিঙ্গাদের দখল পাঁয়তারা কুতুবদিয়া ওসি’র মহিলা কলেজ পরিদর্শন মাতারবাড়ীর ইউপি চেয়ারম্যানের আন্তরিকতায় অবশেষে ভাঙ্গা সড়কটি সংস্কারের উদ্যোগ উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি প্রত্যাহারঃপূর্বের কমিটি বহাল মাহদী সভাপতি সুজন সম্পাদক, ধূরুং ইউনাইটেড় ক্লাবের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত উখিয়ায় বিজিবির ডগ চার্লির তল্লাশীতে ৪১ হাজার ইয়াবা উদ্ধার আটক-১ ৯ দফা দাবীতে ছাত্রদের কঠোর আন্দোলনে উত্তাল হাটহাজারী মাদ্রাসা হাটহাজারী কওমী মাদ্রাসায় আনাস মাদানী কে বহিষ্কার সহ ৫ দফা দাবিতে ছাত্রদের আন্দোলন চলছে উখিয়ার কুতুপালংবাসীর প্রতি তরুণ সমাজকর্মী হেলাল উদ্দিনের বার্তা সরকারের বিচক্ষণতায় ঘুরে দাঁড়াচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনীতি

পেকুয়ায় মসজিদ কমিটি নিয়ে ফের সংবাদ সম্মেলন

  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০
  • ৪২২ জন সংবাদটি পড়েছেন

নাজিম উদ্দিন, পেকুয়া:

পেকুয়ায় সংবাদ সম্মেলনে পশ্চিম টইটং নাপিতখালী কাদিরপাড়া জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির জৈষ্ট্য ব্যক্তিরা জানান, আল্লাহর ঘর মসজিদকে নিয়ে চক্রান্ত থেকে বিরত থাকুন। মসজিদ হচ্ছে কাবা ঘর।

এর হেফাজতকারী স্বয়ং মহান রব্বুল আলামীন। ব্যক্তির দ্বন্ধ মসজিদে আনবেন না। মসজিদ আল্লাহর ঘর। এর উন্নতি সাধন করা হচ্ছে প্রত্যেক মানুষ ও মুমিনের কাজ। কিন্তু সম্প্রতি একটি কুচক্রীমহল একটি ঐতিহ্যবাহী মসজিদের বিরুদ্ধে চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছে। এরা ষড়যন্ত্রকারী। তারা চান এ ভাবে দলাদলি ও অন্ত:দ্বন্ধের মধ্যে মসজিদের উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে থামিয়ে দিতে। আমরা ষ্পষ্ট বলতে চাই যারা মসজিদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে এরা এলাকায় গুটিকয়েক শয়তান শ্রেণীর মানুষ। তারা মসজিদের বিরুদ্ধে সরাসরি অবস্থান নিয়েছে। এরা বিদ্রোহী। বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কাজ হচ্ছে সব সময় চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র করা।

যারা নিজের ঘরে আগুন দিয়ে মামলা দিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে চাই তারাই আজকে মসজিদের বিরুদ্ধে বিভক্তির অপপ্রয়াসে লিপ্ত হয়েছে। কমিটিতে আগে যারা ছিল বর্তমানেও এদের অলি ওয়ারিশরা আছে। রাতে গোপনে মসজিদ কমিটি হয়নি। মসজিদ পরিচালনার জন্য প্রায় দু’বছর আগে বর্তমান কমিটি গঠিত হয়েছে। মসজিদের রক্ষনাবেক্ষন ও পরিচালনার জন্য মহল্লাহর সবাইকে অবগত করা হয়েছে।

সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতি ও সিদ্ধান্তক্রমে বর্তমান কমিটি অনুমোদিত হয়। মসজিদ মাঠে ব্যাপক লোকজনের সমাগমসহ সভার কার্যবিবরনী প্রনীত হওয়ার পর বর্তমান কমিটি গঠিত হয়। এ কমিটির অধীনে মসজিদের যাবতীয় কার্যাদি সম্পাদিত হচ্ছে।

উন্নয়ন অগ্রগতি নিরুপন করছেন বর্তমান কমিটি। সরকারী অনুদানও এসেছে বর্তমান কমিটির মাধ্যমে। সভাপতি মাওলানা আতিক উল্লাহ ও সেক্রেটারী ছৈয়দুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম সওদাগরের নেতৃত্বে নাপিতখালী কাদিরপাড়া জামে মসজিদ পরিচালিত হচ্ছে। মসজিদ পরিচালনা কমিটির নামে একটি ব্যাংক হিসাব নম্বরও খোলা হয়েছে। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও টইটং ইউপির চেয়ারম্যান বর্তমান কমিটিকে বৈধতা দিয়ে সত্যায়িত করেছে।

তবে কিছু কুচক্রী মহল মসজিদের স্বার্থ জলাঞ্জলী দিয়ে আত্মঘাতী সিদ্ধান্তে লিপ্ত রয়েছে। এরা চক্রান্তকারী। ষড়যন্ত্রকারী। আমরা বর্তমান কমিটির প্রতি অনুগত। যারা অপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে এরা জনবিচ্ছিন্ন মানুষ। অক্ষর জ্ঞানহীন। মসজিদ ও ধর্মীয় অনুভূতির সাথে এদের ন্যূনতম সম্পর্ক ও জ্ঞানও নেই। তবে বর্তমান কমিটির সভাপতি মাওলানা আতিক উল্লাহ একজন খোদাভীরু ব্যক্তি। তিনি একজন সৎ ও প্রশংসনীয় ব্যক্তি। একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ছিলেন।

এ মসজিদ প্রতিষ্টা করেছেন তার পরিবার। ৩ একর জমির মধ্যে সর্বাধিক জমি আতিকুল্লাহ গংদের পূর্ব পুরুষরা দিয়েছেন। ৮০ বছর ধরে মসজিদটি পরিচালনা করছেন প্রতিষ্টাতা পক্ষ। এখন যারা বিরোধীতা করছে এরা মসজিদ পরিচালনায় আগেও ছিলনা, বর্তমানেও নেই। সেক্রেটারী ছৈয়দুর রহমানও সৎ ব্যক্তি। তিনিও অভিবক্ত বারবাকিয়ার সাবেক জনপ্রতিনিধি। কোষাধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম সওদাগর মসজিদের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন। মসজিদের যাবতীয় ব্যয় ও আয়ের হিসাব তিনি সংরক্ষন করছেন। সহসভাপতি মাওলানা ওমর ফারুক একজন দানবীর ও সর্বজন গ্রহনযোগ্য ব্যক্তি।

মসজিদ নিয়ে যারা সংবাদ সম্মেলন করেছে এরা মামলাবাজ। ছরওয়ার কামাল নামক ব্যক্তি যিনি সংবাদ সম্মেলন করেছেন তিনি একজন দুর্দান্ত মামলাবাজ। নিজের ঘরে আগুন দিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর জন্য আদালতে মামলা করে। তদন্তে বেরিয়ে এসেছে ছরওয়ার তার ঘরে আগুন দিয়েছে। আমাদেরকে ফাঁসাতে না পেরে এখন মসজিদ নিয়ে দ্বন্ধে লিপ্ত হয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে সভাপতি মাও: আতিক উল্লাহ জানান, লাঠিসোটা নিয়ে আমির হোসেন, ছরওয়ার কামালগং মসজিদে ঢুকেছে। তারা আমাকে মারধর করেছে। আমার ছেলেকে ইমামতি থেকে বের করে দিয়েছে। বৃদ্ধ এক মহিলাকে বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায়। বাড়ি ভাংচুর করে। এরা এখন আবার সংবাদ সম্মেলন করেছে।

ওসি স্যার একজন অফিসারকে পাঠিয়েছিলেন। এখানকার বাস্তব অবস্থা প্রশাসন দেখে গেছে। বাড়াবাড়ি না করতে বারণ করেছে। এরপরও এর থেমেনি। আমরা এখন আতংক ও জানমালের নিরাপত্তা হুমকিতে আছি। রাস্তায় বের হতে দিচ্ছেন না। হামলা ও প্রাণনাশের হুমকি আসছে প্রতিনিয়ত।

১৫ জুন (সোমবার) দুপুরে টইটং ইউনিয়নের নাপিতখালী কাদিরপাড়া জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটি এক সংবাদ সম্মেলন আহবান করে। পেকুয়া চৌমুহনীস্থ পেকুয়া প্রেস ক্লাবে অনুষ্টিত প্রেস ব্রিফিংয়ে লিখিত বক্তব্য দেন মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাওলানা আতিক উল্লাহ, সেক্রেটারী ছৈয়দুর রহমান, সহসভাপতি মাও: ওমর ফারুক, কোষাধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম সওদাগর।

এ সময় পেকুয়ায় কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইন সংবাদ মাধ্যমের কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত সম্প্রতি পশ্চিম টইটং কাদিরপাড়া জামে মসজিদ পরিচালনা নিয়ে দুটি পক্ষ তৈরী হয়েছে। আধিপত্য নিতে উভয়পক্ষের মধ্যে বিরোধ চরম আকার ধারন করে।

একপক্ষ অপরপক্ষকে দায়ী করে এক সপ্তাহের ব্যবধানে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন ও বিভিন্ন অধিদপ্তরে এক পক্ষ আরেক পক্ষের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!