1. babuibasa@gmail.com : editor :
  2. rokunkutubdia@gmail.com : reporter :
  3. rokunkutubdia@yahoo.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
  4. rokiotullah@gmail.com : Rokiot Ullah : Rokiot Ullah
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৪:৪০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
শাপলাপুরের গহীন পাহাড়ে মহেশখালী থানা পুলিশের অভিযান ২ টি অস্ত্র উদ্ধার,আটক ১ উখিয়ায় পেটের ভেতরের ৩ হাজার পিস ইয়াবাসহ বগুড়ার সুজন প্রামাণিক আটক! উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ হতাহত-৬ নকলার লাভলু ভাত না খেয়েও অতিবাহিত করলো ২১ বছর ঘুমধুম পুলিশে ত্রিশ লাখ টাকার তিনটি স্বর্ণের বার উদ্ধার,এক রোহিঙ্গা গ্রেফতার উখিয়ায় পাহাড় কর্তনকালে মাটিসহ ডাম্প ট্রাক মহেশখালীতে জেলা বিএনপি নেতা আতাউল্লাহ বোখারীর নেতৃত্বে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালিত উখিয়ায় বনবিভাগের অভিযানে বালু উত্তোলন কালে ড্রেজার মেশিনের সরঞ্জাম উদ্ধার মহেশখালী থেকে ইয়াবা সরবরাহ করতে গিয়ে নোয়াখালীতে এসে আটক হলেন -২ বান্দরবানে মসজিদের ইমাম হত্যার ঘটনায় শফি পুত্র শাইখুল হাদীস আনাস মাদানীর নিন্দা ও প্রতিবাদ

পাকিস্তানে বিক্রি হচ্ছে পঙ্গপাল!

  • সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ৩০ মে, ২০২০
  • ১৮৫ জন সংবাদটি পড়েছেন

পাকিস্তানে হানা দিয়েছে পঙ্গপাল। দেশটিতে হাজার হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট করছে এটি। এবার পঙ্গপাল ধরে তা বিক্রি করছেন পাকিস্তানের ওকারা জেলার কর্মকর্তারা। এটি দিয়েই তৈরি হচ্ছে উচ্চ প্রোটিন সমৃদ্ধ হাঁস-মুরগির খাবারও।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম স্ক্রল ইনের  খবরে বলা হয়, পাকিস্তানের ওকারা জেলায় প্রতি কেজি পঙ্গপাল এখন ২০ রুপি দরে বিক্রি হচ্ছে। এ পঙ্গপাল পেস্ট করে হাঁস-মুরগির খাবার (ফিড) তৈরিতে প্রোটিন হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। পাইলট প্রকল্প হিসেবে হাঁস-মুরগির এ খাবার তৈরি করা হচ্ছে।

পাকিস্তানের খাদ্য সুরক্ষা ও গবেষণা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা মুহাম্মদ খুরশিদ এবং পাকিস্তান কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের বায়োটেকনোলজিস্ট জোহর আলী পঙ্গপাল ব্যবহার করে এ ফিড তৈরির কৌশল বের করেছেন।

জোহর আলী বলেন, ‘কেউ ভাবেনি মানুষ পঙ্গপাল ধরে বিক্রি করতে পারবে। তাই এটি করার জন্য আমাদের উপহাস করা হয়েছিল।’

মুহাম্মদ খুরশিদ জানান , তারা ইয়েমেনের একটি ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রণের এই পদ্ধতি বের করেন। ২০১৯ সালের মে মাসে ইয়েমেনে পঙ্গপাল হানা দিলে দেশটির কয়েকটি অঞ্চলে এমন পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়।

পঙ্গপাল ধরা খুব সহজ। এরা দিনের আলোয় চলাচল করে। আর রাতে গাছে আশ্রয় নেয় বলে জানান খাদ্য সুরক্ষা ও গবেষণা মন্ত্রণালয়ের এই কর্মকর্তা।

পাকিস্তানে ২০১৯ সালের মার্চে প্রথম পঙ্গপালের আক্রমণ হয়েছিল। পরে তা সিন্ধু, দক্ষিণ পাঞ্জাব ও খাইবার পাখতুনখাওয়ায় কমপক্ষে ৯ লাখ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট করে। পঙ্গপাল দেশটির গাছের ফলও ক্ষতিগ্রস্ত করে। এতে কয়েক কোটি রুপির ক্ষতির মুখে পড়ে পাকিস্তান। পঙ্গপালের আক্রমণ দূর করতে পাকিস্তান সরকার গত ফেব্রুয়ারিতে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে।

আপনি সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ চট্টগ্রাম টুডে কর্তৃক সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews
error: Content is protected !!